১৫৫টি টিয়া শাবক উদ্ধার নারকেলডাঙায়, গ্রেফতার চোরা-পাচারকারী

মার্চ ২৬, ২০২১ দুপুর ০৪:৫৩ IST
605dc3321d15a_7e2798fc12eed55a42eb2b2a6c38307c

নিজস্ব প্রতিনিধি, কলকাতা - গোপন সূত্রে খবর পেয়ে নারকেলডাঙা অঞ্চলে তল্লাসি করে ১৫৫টি টিয়া শাবক উদ্ধার করেছে কেন্দ্রীয় বন্যপ্রাণ অপরাধ দমন শাখা (ডব্লিউসিসিবি) ও কলকাতা পুলিশের যৌথ বাহিনী। গ্রেফতার করা হয়েছে এক পাখি চোরা-কারবারিকে। 

ডব্লিউসিসিবি-র পূর্বাঞ্চলের ভারপ্রাপ্ত যুগ্ম অধিকর্তা অগ্নি মিত্র জানিয়েছেন, "বৃহস্পতিবার ভোর সাড়ে ৫টা নাগাদ এপিসি রোড এবং নারকেলডাঙা রোডের ক্রসিংয়ের রাস্তা থেকে টিয়া ভর্তি ছ’টি খাঁচা-সহ ফৈয়াজ ওরফে বরখা নামে ওই ব্যক্তিকে গ্রেফতার করা হয়।" 

তিনি আরো জানান ‘‘ডব্লিউসিসিবি এবং কলকাতা পুলিশের গোয়েন্দা বিভাগের অন্তর্গত বন্যপ্রাণ অপরাধ দমন শাখার কর্মীদের যৌথ অভিযানে পাখিগুলি উদ্ধার হয়েছে। উদ্ধার হওয়া শিশু টিয়াগুলি অধিকাংশই রোজ রিংগড প্যারাকিট প্রজাতির। সেগুলি সল্টলেকের বন্যপ্রাণ উদ্ধার কেন্দ্রে পাঠানো হয়েছে, নারকেলডাঙা বস্তির বাসিন্দা বরখা বহুদিন থেকেই বেআইনি ভাবে দেশীয় প্রজাতির পাখির ব্যবসা করে বলে আমরা জেনেছি। গ্যালিফ স্ট্রিটের হাটেও সে এবং তার লোকেরা টিয়া, ময়না-সহ নানা পাখি লুকিয়ে বিক্রি করে।" 

বৃহস্পতিবার উদ্ধার হওয়া পাখিগুলি সম্ভবত ভিনরাজ্য থেকে আনা হয়েছিল বলে জানা গেছে। ধৃত ব্যক্তি সেগুলি নিয়ে বাড়িতে ফেরবার সময় তাকে গ্রেফতার করা হয়। কলকাতা পুলিশের হেফাজতে তাকে জেরা করে চক্রের সন্ধান পাওয়ার চেষ্টা চলছে। প্রসঙ্গত, চলতি মাসে বর্ধমান জেলাতেও বিহার ও ঝাড়খণ্ড থেকে পাচার হয়ে আসা কয়েকশো টিয়া শিশু উদ্ধার করেছে রাজ্য বনদপ্তর এবং ডব্লিউসিসিবি। অগ্নি জানান, বসন্তের এই সময়টি টিয়া প্রজাতিগুলির প্রজনন ঋতু। তাই এই সময়ে বাসা থেকে শিশু পাখি চুরি করবার সুযোগ অনায়াসেই পায় চোরা-শিকারিরা।

ভিডিয়ো