জপমালি গ্রামের মানুষদের আজও পানীয় জলের ভরসা দামোদরের চুয়োখাল

এপ্রিল ১২, ২০২১ দুপুর ১০:২১ IST
6073172e790d1_WhatsApp Image 2021-04-11 at 20.58.51

নিজস্ব প্রতিনিধি, বাঁকুড়া - বাঁকুড়া জেলার মেজিয়া ব্লকের জপমালি গ্রামে প্রায় সাড়ে তিনশো পরিবারের বসবাস। এই গ্রামের মানুষদের পানীয় জলের ভরসা বলতে দামোদর নদের চুয়ো খাল। প্রায় কয়েক দশক ধরে গ্রামবাসীরা দামোদর নদের মাঝ থেকে বালি সরিয়ে চুয়ো খাল থেকে পানীয় জল সংগ্রহ করে চলেছেন। 

গ্রামে সরকারি বেশ কয়েকটি নলকূপ রয়েছে।কিন্তু সেই নলকূপের জল পানের অযোগ্য।নলকূপের জলে আয়রন থাকায় রান্নাবান্না খুব একটা ভালো হয় না বলে দাবি গ্রামবাসীদের। তবে এই নলকূপ গুলি থেকে আয়রন মুক্ত জল গ্রামবাসীদের সরবরাহের লক্ষ্যে রাজ্য সরকারের উদ্যোগে নলকূপের সাথে আয়রন মুক্ত করার মেশিন লাগানো হলেও সেই মেশিন আজ দেখভালের অভাবে অকেজো হয়ে পড়ে রয়েছে। তাই বাধ্য হয়ে কয়েক দশক ধরেই গ্রামবাসীদের জীবন দামোদরের চুয়ো খালের উপরেই নির্ভরশীল।

বাঁকুড়া জেলা জুড়ে রাজ্য সরকারের উদ্যোগে নলবাহিত বিশুদ্ধ পানীয় জল সরবরাহের লক্ষ্যে যে প্রকল্প হাতে নিয়েছে রাজ্য সরকার সেই প্রকল্প এই গ্রামে আজও অথই জলে। আর এতেই রাজ্য সরকারের ভূমিকায় প্রশ্ন তুলছেন গ্রামবাসীদের একাংশ।স্থানীয় গ্রাম পঞ্চায়েত গ্রামবাসীদের এই সমস্যার কথা স্বীকার করে নিয়েছেন। তৃণমূল পরিচালিত গ্রাম পঞ্চায়েত প্রধানের দাবি খুব শিগগিরই রাজ্য সরকারের উদ্যোগে নল বাহিত বিশুদ্ধ পানীয় জল সরবরাহ হবে এই গ্রামে।

এই প্রসঙ্গে রাজ্য সরকারকে খোঁচা দিতে ছাড়েনি স্থানীয় বিজেপি নেতৃত্ব। বিজেপির দাবি শুধুমাত্র মানুষের সামনে তুলে ধরা হচ্ছে উন্নয়ন আর উন্নয়ন কিন্তু বাস্তবের সাথে সেই উন্নয়নের কোনো মিল নেই, জপমালি গ্রাম তার দৃষ্টান্ত উদাহরণ।

ভিডিয়ো